ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
সর্বশেষ:

নিজস্ব প্রতিবেদক

১০ অক্টোবর ২০২১, ১৫:১০

করোনাভাইরাস

নতুন ঢেউ আসতে পারে, স্বাস্থ্য বিধি মানার বিকল্প নেই : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

21107_5555.jpg
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক এমপি ( ফাইল ছবি)
স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এমপি বলেছেন, স্বাস্থ্যবিধি মানার কোনো বিকল্প নেই। কারণ মহামারীর নতুন ঢেউ আসতে পারে।

রোববার দুপুর ১টায় রাজধানীর মহাখালীর বিসিপিএস অডিটোরিয়াম হলে সর্বশেষ কোভিড পরিস্থিতি, ভ্যাক্সিন ও সমসাময়িক বিষয়াদি নিয়ে মিডিয়া ব্রিফকালে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, আমরা এখন পর্যন্ত ৭ কোটি ২২ লাখ টিকা হাতে পেয়েছি। এরমধ্যে মোট ৫ কোটি ৪১ লাখ টিকা দেয়া হয়েছে। এখনো আমাদের হাতে ১ কোটি ৮১ লাখ টিকা রয়েছে। এর বিপরীতে ৫ কোটি ২৯ লাখ মানুষ টিকার জন্য রেজিষ্ট্রেশন করেছেন।

এ মাসে যে টিকা আসবে তাতে মাস শেষে তিন কোটির বেশি থাকবে। অর্থাৎ প্রায় আরো দেড় কোটি টিকা আসছে এ মাসে। নভেম্বরে কোভ্যাক্স সহ পৌনে চার কোটি হাতে থাকবে। সবচেয়ে বেশি টিকা আসবে ডিসেম্বরে, ৫ কোটি। এছাড়া আগামী জানুয়ারিতে পৌনে ৪ কোটি আসবে। জানুয়ারির মধ্যে ১৬ কোটির বেশি টিকা থাকবে।

মন্ত্রী আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে ৮০ লাখ ভ্যাকসিন দেয়া হয়েছে। আমরা প্রতিমাসে এমন একটি করে গণটিকা কর্মসূচি পালন করবো। এছাড়াও দৈনিক ১০-১৫ লাখ টিকা দেয়া হবে।

তিনি শিশুদের টিকার বিষয়ে বলেন, শিশুদের টিকা কার্যক্রম পরিচালনার জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা আরো বরাদ্দ বাড়িয়েছে। করোনার টিকা উৎপাদনে টেকনিক্যাল সহযোগিতাও দিবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

আগামী ডিসেম্বর-জানুয়ারির মধ্যে ৮ কোটি টিকা দেয়া হবে। এরমধ্যে ডাবল ডোজ ১কোটি ৮২ লাখ। আর জানুয়ারির মধ্যে ৮ কোটি ডাবল ডোজ লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এরপর মার্চ এপ্রিল মাসে ১২ কোটি ডাবল ডোজ টিকা দেয়া যাবে।

বায়োটেকের টিকার পেট্রোনাইজ করা হবে। তবে সরকার এবিষয়ে সতর্ক আছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন আদায় করে নিতে হবে।

এসময় স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরো বলেন, দ্রুতই শিশুদের টিকা দেয়া হবে, হাতে ৬০ লাখ টিকা হাতে আছে, আরো হাতে পেলে দেয়া হবে। এছাড়া ১২-১৭ বছরের ছাত্রছাত্রীদের টিকা দেয়া নিশ্চিত করা হবে। এর আওতায় ৩০ লাখ শিক্ষার্থীকে টিকা দেয়া হবে।