ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
সর্বশেষ:

এনএনবিডি ডেস্ক

২০ জুলাই ২০২১, ১২:০৭

মমেকে করোনা ইউনিটে আজো ২১ জনের মৃত্যু

19359_5.jpg
সংগৃহীত
ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে, যা এই হাসপাতালে এক দিনে মৃত্যুর রেকর্ড।

আজ মঙ্গলবার সকালে পাওয়া হাসপাতালের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় মমেক হাসপাতালে ময়মনসিংহ জেলা ও জেলার বাইরের মৃত ২১ জনের মধ্যে সাত জন করোনায় আক্রান্ত হয়ে এবং ১৪ জন করোনার উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

মমেক হাসপাতালের মেডিসিন ইউনিটের কনসালটেন্ট এবং করোনা ইউনিটের ফোকাল পার্সন ডা. মো. মহিউদ্দিন খান আজ সকালে এ তথ্য জানিছেন।

ডা. মো. মহিউদ্দিন খান জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ইউনিটে মৃতদের মধ্যে করোনা পজিটিভ হয়ে মারা গেছেন ময়মনসিংহের ভালুকার সাগর (২৫) ও মোকসেদুল (২৮), হালুয়াঘাটের প্রদীপ সাগমা (৮৩), নেত্রকোনার কেন্দুয়ার সালেহা (৭০), পূর্বধলার আক্কাস আলি (৬৫), জামালপুর সদরের হেরা লাল (৫৫), এবং টাঙ্গাইলের মধুপুরের ফরিদা ইয়াসমিন (৫৩)।

এ ছাড়া উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন ময়মনসিংহ সদরের শহিদুল (৬০), নওশের আলি (৯০) ও সালমা (২০), গোরীপুরের মোহাম্মদ আলি (৭০), মুক্তাগাছার হাজেরা (৭০) ও মুক্তাগাছার মোমেনা বেগম (২৫), ও নাসিমা (৪০), ফুলপুরের শরিফুদ্দিন (৬০), নেত্রকোনা সদরের রিয়াসুল হক (৫৫), জামালপুর সরিষাবাড়ির উমর আলি (৬৫), শেরপুরের নকলার মঞ্জুর (৬৫), গাজীপুরের দিপক সরকার (৪৫), টাংগাইলের মোমেনা (৬০) এবং শখিপুরের আব্দুল হাকিম (৬০)।

ডা. মো. মহিউদ্দিন খান আরও জানান, মমেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মোট রোগী ভর্তি আছেন ৩৯২ জন এবং আইসিইউতে ভর্তি আছেন ২১ জন।

এদিকে, জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছে—ময়মনসিংহ জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় ৯২৪টি নমুনা পরীক্ষা করে ২০১ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে পিসিআর ল্যাবে ৪৬ জনন এবং অ্যান্টিজেন টেস্টে ১৫৫ জন শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ২১ দশমিক ৭৫ শতাংশ।

এ ছাড়া জেলায় ২৪ ঘল্টায় ১২৫ রোগী ভর্তি বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। তার মধ্যে মমেক হাসপাতালে ১০৫ জন, সিবিএমসিবিতে ১১ জন এবং বিভিন্ন উপজেলা হাসপাতালে ১১ জন রোগী ভর্তি আছেন।

এদিকে, জেলার সর্বশেষ করোনা টেস্টের প্রতিবেদন অনুযায়ী জানা যায়, ময়মনসিংহ সদরে ১০৮ জন, নান্দাইলে ১৪ জন, ঈশ্বরগঞ্জে দুজন, গৌরীপুরে ১৪ জন, তারাকান্দায় চার জন, হালুয়াঘাটে ১৬ জন, মুক্তাগাছায় ১১ জন, ফুলবাড়িয়ায় চার জন, ত্রিশালে ১৩ জন, ভালুকায় চার জন এবং গফরগাঁওয়ে ১১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

এ পর্যন্ত জেলায় মোট ১১ হাজার ৯৮২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে এবং মারা গেছে ১২১ জন।