ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
সর্বশেষ:

নিজস্ব প্রতিবেদক

৬ জুলাই ২০২১, ১১:০৭

রেকর্ড ৩৬ শতাংশ বেড়েছে রেমিট্যান্স

19040_1625499.jpg
করোনাভাইরাস সংক্রমণের মধ্যেও অর্থনীতিতে স্বস্তি দিচ্ছে প্রবাসী বাংলাদেশিদের পাঠানো রেমিট্যান্স। সদ্য সমাপ্ত ২০২০-২১ অর্থবছরে প্রবাসীরা ব্যাংক ব্যবস্থার মাধ্যমে ২ হাজার ৪৭৮ কোটি ডলার সমপরিমাণ অর্থ দেশে পাঠিয়েছেন।

এর আগের অর্থবছরে যার পরিমাণ ছিল এক হাজার ৮২০ কোটি ডলার। এ হিসাবে গত অর্থবছরে রেমিট্যান্স বেড়েছে ৬৫৭ কোটি ডলার বা ৩৬ দশমিক ১০ শতাংশ। একক অর্থবছরে এর আগে কখনও এত রেমিট্যান্স আসেনি। এক অর্থবছরে এত প্রবৃদ্ধি কখনও হয়নি।

এর আগে রেমিট্যান্সে সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধির রেকর্ড ছিল ২০০১-০২ অর্থবছরে। ওই অর্থবছরে প্রবাসীরা ২৫০ কোটি ডলার দেশে পাঠান যা আগের অর্থবছরের চেয়ে ৩২ দশমিক ৮৯ শতাংশ বেশি ছিল।

আর সাধারণভাবে প্রতিবছর রেমিট্যান্স বাড়লেও ২০০০-০১, ২০১৩-১৪, ২০১৫-১৬ ও ২০১৬-১৭ অর্থবছরে কমে যায়।

সোমবার (৫ জুলাই) দিন শেষে ৪৬ দশমিক ৪৩ বিলিয়ন ডলার অতিক্রম করেছে। যা বাংলাদেশি মুদ্রায় ৪ হাজার ৬৪৩ কোটি ডলার।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী চলতি বছরের জুন মাসে প্রবাসীরা ১৯৪ কোটি ডলার দেশে পাঠিয়েছেন।

ব্যাংকাররা বলেছেন, বৈধপথে রেমিটেন্স পাঠালে ২০১৯-২০ অর্থবছর থেকে ২ শতাংশ নগদ প্রণোদনা দিচ্ছে সরকার। তার সঙ্গে কয়েকটি ব্যাংক ও মোবাইল ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান আরও ১ শতাংশ প্রণোদনা দিচ্ছে। যে কারণে ধারাবাহিকভাবে বেড়েছে রেমিটেন্স।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পরিসংখ্যান বলছে, এর আগে কখনো এক অর্থবছরে এই পরিমাণ রেমিটেন্স আসেনি। ২০০১-০২ অর্থবছরে ২৫০ কোটি ডলার দেশে পাঠিয়ে রেমিটেন্সের প্রবৃদ্ধির রেকর্ড গড়েছিল প্রবাসীরা। যা ২০০০-০১ অর্থবছরের চেয়ে ৩২ দশমিক ৮৯ শতাংশ বেশি ছিল। পরবর্তীকালে ২০১৩-১৪, ২০১৫-১৬ ও ২০১৬-১৭ অর্থবছরে রেমিটেন্স কমে যায়।