ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
সর্বশেষ:

খন্দকার রাকিবুল ইসলাম,রংপুর

৫ জুলাই ২০২১, ০০:০৭

স্বেচ্ছাসেবক চিকিৎসক চেয়ে ফেসবুক পোস্ট, সাড়া দিলেন ৪ জন

19035_WhatsApp.jpg
রংপুর বিভাগের  দেড়কোটি মানুষের করোনা চিকিৎসার জন্য ১০০ শয্যাবিশিষ্ট  বিশেষায়িত ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালে ধারনক্ষমতার চেয়ে বেশী রোগী ভর্তি হওয়ায় হিমশিম খাচ্ছে চিকিৎসকেরা।

রবিবার সকালে হাসপাতালটির তত্বাবধায়ক এস এম নুরুন্নবী স্বেচ্ছাসেবক চিকিৎসক হিসেবে দায়িত্ব পালনের আহবান জানিয়ে নিজের ফেসবুকে একটি পোস্ট করেন।

তার এই আহবানে সাড়া দিয়ে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করার আগ্রহ জানিয়ে  রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ৪ ইন্টার্ন চিকিৎসক। সোমবার সকালে ওই চার চিকিৎসক হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কের সঙ্গে দেখা করেছেন।

স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করতে আগ্রহী চিকিৎসকরা হলেন- ডা. আকিবুল ইসলাম, ডা. রেজওয়ানুল হক, ডা. মুদাসসিরর আলী ও ডা. সুমন আহমেদ।

ডা. রেজওয়ান জানান, স্যারের পোস্ট দেখে বসে থাকতে পারিনি। বর্তমানে কঠিন সময় পার করছি আমরা সকলেই। এমন সময়ে মানুষের জন্য কাজ করার তাড়না থেকেই স্যারের সাথে যোগাযোগ করেছি।

ডা. এস এম নুরুন্নবী বলেন, ওই চারজন দেখা করেছেন। আরও অনেকেই কাজ করতে আগ্রহ দেখিয়েছেন। আগামীকাল থেকে তাদের কাজ শুরু হবে। তাদেরকে প্রশিক্ষণ দিয়ে তৈরি করা হবে।

এর আগে গত রোববার তিনি তার নিজস্ব ফেইসবুক আইডিতে লেখেন, করোনা মহামারির এই সময়ে রংপুর ডেডিকেটেড করােনা আইসােলেশন
হাসপাতালে রােগীর সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় গুনগত মানের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতে কিছু স্বেচ্ছাসেবী তরুণ চিকিৎসক প্রয়ােজন। আগ্রহীদের যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করেন তিনি। স্বেচ্ছাসেবক চিকিৎসকদের সুরক্ষা ও প্রশিক্ষণের দায়িত্ব হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বলে উল্লেখ করেন তিনি।

এ ব্যাপারে ডা.এস এম নুরুন্নবী জানিয়েছিলেন, হাসপাতালে রোগীর চাপ অনেক বেড়ে গেছে। ১০০ রোগীকে শিফট করে চিকিৎসা দিচ্ছেন মাত্র ২০জন চিকিৎসক। যা প্রয়োজনের তুলনায় অনেক কম। তারা চিকিৎসা সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন। তাই স্বেচ্ছাসেবী চিকিৎসকদের আহবান করেছি। দু-চারজন আসলেও আমরা উপকৃত হবো।