ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
সর্বশেষ:

এনএনবিডি ডেস্ক

২৭ জুন ২০২১, ১৬:০৬

২৫ দিন ধরে নিখোঁজ নোমান, নাছিম ও শহিদুল !

18835_007.jpg
সংগৃহীত ছবি
আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যের পরিচয় দিয়ে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার এলাকা থেকে তিনজনকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে দাবি করেছেন ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা। ২৫ দিন আগে (২ জুন) তাঁদের তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। সেই থেকে তাঁরা নিখোঁজ। নিখোঁজ তিনজন হলেন নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারের পাঁচরুখী গ্রামের বাসিন্দা মো. নোমান, মো. নাছিম ও বগুড়ার শহিদুল ইসলাম।

নিখোঁজ নোমান পেশায় ব্যবসায়ী। নাছিম মাদ্রাসাছাত্র এবং শহিদুল আড়াইহাজার এলাকার একটি মসজিদের ইমাম।

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সংবাদ সম্মেলন করে আজ রোববার দুপুরে এসব তথ্য জানান ভুক্তভোগী তিনজনের পরিবারের সদস্যরা।

সংবাদ সম্মেলনে নোমানের বাবা সরোয়ার হোসেন দাবি করেন, নোমান আড়াইহাজারের বান্টি বাজারে গার্মেন্টস ব্যবসা করেন। অন্যান্য দিনের মতো সেদিনও (২ জুন) নোমান মোটরসাইকেলে করে দোকানের উদ্দেশে বাসা থেকে রওনা হন। সকাল ১০টা ৫৩ মিনিটে বাজারে পৌঁছালে অজ্ঞাতনামা সাত থেকে আটজন লোক নিজেদের গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) পরিচয় দিয়ে মোটরসাইকেলের গতিরোধ করেন। একই সময় সেখানে থাকা নাছিম ও শহিদুলকেও তাঁরা জোরপূর্বক একটি মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে অজ্ঞাত স্থানে চলে যান। পরে তিনিসহ নিখোঁজ তিন পরিবারের সদস্যদের নিয়ে আড়াইহাজার থানা ও নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে যান। তবে কোনো সংস্থা তাঁর ছেলেসহ অন্যদের আটক বা গ্রেপ্তারের বিষয়টি স্বীকার করেনি।

সরোয়ার হোসেন জানান, নোমানসহ তিনজনের সন্ধান চেয়ে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি), ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি, নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক, নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার, আড়াইহাজার থানা ও র‍্যাব-১১–এর অধিনায়ক বরাবর আবেদন করেছেন।

মাদ্রাসাছাত্র নাছিমের বাবা সিরাজ মিয়াও সাংবাদিকদের কাছে দাবি করেন, তাঁর ছেলেসহ তিনজন নিখোঁজের পর আড়াইহাজার থানাসহ সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজাখুঁজির পরও কোনো সন্ধান পাননি। ২৫ দিন ধরে ছেলেকে খুঁজে পাওয়ার জন্য সব চেষ্টাই করছেন।

নিখোঁজ ইমাম শহিদুলের স্ত্রী লাবণী আক্তার সাংবাদিকদের কাছে দাবি করেন, তাঁর স্বামী রাষ্ট্রবিরোধী কোনো কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত নন। ডিবি পুলিশের পরিচয় দিয়ে তুলে নিয়ে যাওয়ার পর থেকে স্বামীর মুঠোফোন বন্ধ পাচ্ছেন।

ভুক্তভোগী তিনটি পরিবারের সদস্যরা বলছেন, নিখোঁজ তিনজন সাধারণ মানুষ। তাঁরা কোনো সংগঠনের সঙ্গে জড়িত নন। তাঁদের নামে থানায় একটি জিডিও নেই। তারপরও তাঁদের তুলে নিয়ে অজ্ঞাত স্থানে আটকে রাখা হয়েছে। যত দ্রুত সম্ভব তাঁদের উদ্ধার করা হোক।

সংবাদ সম্মেলনে নিখোঁজ নোমানের স্ত্রী তানিয়া আক্তার বলেন, ‘আমার অবুঝ ছেলেমেয়ে বারবারই বলছে, আব্বু কোথায়? আমি সরকারপ্রধানসহ সবার কাছে বিনীত অনুরোধ করছি, আমার স্বামীসহ তিনজনকে দ্রুত উদ্ধার করে আমাদের কাছে ফিরিয়ে দিন। ২৫ দিন ধরে থানা, পুলিশ, র‍্যাব—সব জায়গায় খুঁজে ফিরছি। কিন্তু কেউই আমার স্বামীর খোঁজ দিতে পারছে না।