ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
সর্বশেষ:
ব্রেকিং নিউজ
  • মালয়েশিয়ায় সর্বাত্নক লকডাউনের ঘোষণা
  • সোহবত ছাড়া দাওয়াত ফলপ্রসূ হয় না
  • দশ মিনিটে ক্যান্সার পরীক্ষা, হার্ভার্ডে ডাক পেলেন আবু আলী
  • দ্বিতীয় শ্রেণিতে পাশ করেও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক!
  • দেশে নতুন সেনাপ্রধান এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ

নিজস্ব প্রতিবেদক

৯ জুন ২০২১, ১৯:০৬

রাজশাহী জেলায় শনাক্তে রেকর্ড, কমেছে বিভাগে

18233_করোনা.jpg
ছবি- সংগৃহীত
রাজশাহী বিভাগের আট জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত ও মৃত্যু আগের দিনের তুলনায় কিছুটা কমেছে। তবে রাজশাহী জেলায় শনাক্তের সংখ্যা আগের যে কোনো দিনের চেয়ে বেশি হয়েছে।
 
গতকাল মঙ্গলবার রাজশাহী বিভাগে সকাল আটটা থেকে আজ বুধবার সকাল আটটা পর্যন্ত করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে ৬৪১ জনের। তার মধ্যে শুধু রাজশাহী জেলায় শনাক্ত হয়েছে ৩৫৩ জন। এক দিনে জেলায় এটিই সর্বোচ্চ শনাক্তের রেকর্ড।
 
গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগের আট জেলায় করোনায় আরও সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। আগের ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ১২ জনের মৃত্যু এবং সর্বোচ্চ ৬৭৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছিল। নমুনা শনাক্তের হার ছিল ১৬ দশমিক ২৬ শতাংশ।
 
গত ২৪ ঘণ্টায় এই হার কমে দাঁড়িয়েছে ১৪ দশমিক ৫৩ শতাংশে। আজ দুপুরে রাজশাহী বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক নাজমা আক্তার স্বাক্ষরিত প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানা গেছে।
নতুন ৬৪১ জনকে নিয়ে বিভাগে করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৯ হাজার ৭৪৫।
 
নতুন শনাক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ শনাক্ত হয়েছে নওগাঁয় ৮৮ জন। এ ছাড়া চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৬৫ জন, নাটোরে ৪৪ জন, জয়পুরহাটে ৪২ জন, বগুড়ায় ২৩ জন, সিরাজগঞ্জে ১৩ জন ও পাবনায় ১৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।
 
বিভাগে করোনায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬১৬। গত ২৪ ঘণ্টায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও নাটোরে দুজন করে এবং রাজশাহী, বগুড়া ও সিরাজগঞ্জে একজন করে মারা গেছেন।
 
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রতিবেদন অনুযায়ী বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১১০ জন। এ নিয়ে বিভাগে মোট সুস্থ হলেন ৩২ হাজার ৬৪২ জন। বর্তমানে বিভাগের ৮ জেলায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৪ হাজার ১২৮ জন। এর মধ্যে ৪১ জন ভর্তি হয়েছেন গত ২৪ ঘণ্টায়।
 
সহকারী পরিচালক নাজমা আক্তার প্রথম আলোকে বলেন, ‘এখনই বলা যাচ্ছে না করোনার পিক টাইম যাচ্ছে কি না। বিভাগের কোনো কোনো জেলায় কিছুদিন আগে ৬০ শতাংশের বেশি শনাক্ত হয়েছিল। এখন কিছুটা কমেছে। তবে সংক্রমণ আবার বাড়তেও পারে। করোনাবিরোধী জনসচেতনতা বাড়াতে হবে। বিভাগের সব জেলায় র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষা সংখ্যা বাড়ানোর চেষ্টা করছেন।’