ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
সর্বশেষ:
ব্রেকিং নিউজ
  • মালয়েশিয়ায় সর্বাত্নক লকডাউনের ঘোষণা
  • সোহবত ছাড়া দাওয়াত ফলপ্রসূ হয় না
  • দশ মিনিটে ক্যান্সার পরীক্ষা, হার্ভার্ডে ডাক পেলেন আবু আলী
  • দ্বিতীয় শ্রেণিতে পাশ করেও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক!
  • দেশে নতুন সেনাপ্রধান এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ

এনএনবিডি ডেস্ক

৫ জুন ২০২১, ২১:০৬

সেই ইউএনও’র দায় পড়ল ইউপি সদস্যের ঘাড়ে

18075_1622903862.jpg
ছবি- সংগৃহীত

খাদ্য সহয়তা চেয়ে জাতীয় হটলাইন নাম্বার ‘৩৩৩’ ফোন করে খাদ্য সহয়তা না পেয়ে জরিমানা দেওয়া নারায়ণগঞ্জের সদর উপজেলার সেই ঘটনার প্রতিবেদন জমা দিয়েছে তদন্ত কমিটি ।

আজ শনিবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোস্তাইন বিল্লাহ এ সব কথা বলেন। তিনি বলেন, আগামী রোববার প্রতিবেদন জমা দেওয়ার তারিখ ছিল কিন্তু তার আগেই গত বৃহস্পতিবার রাতে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি প্রধান অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শামীম ব্যাপারী পাঁচ পৃষ্ঠার প্রতিবেদন জমা দেন।

প্রতিবেদনে কাশিপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য ও প্যানেল চেয়ারম্যান আইয়ুব আলীর দেওয়া ভুল তথ্যে এ ঘটনা ঘটেছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। তবে, ইউএনও'র বিষয়ে কোন কিছু উল্লেখ না করে কর্মকর্তাদের আরও দায়িত্বশীল হওয়ার জন্য সুপারিশ করা হয়েছে।

তিনি জানান, প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে যে ‘সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বারের (কাশিপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড মেম্বার আইয়ুব আলী) দেওয়া ভুল তথ্যের জন্য এ ঘটনা ঘটেছে। যথাযথ কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে তার বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সেটা শাস্তিমূলক না অন্য কি হবে এটা কর্তৃপক্ষ মন্ত্রণালয় নির্ধারণ করবে।’

উল্লেখ্য, রেডিওতে শুনতে পেয়ে ১৮ মে ‘৩৩৩’ এ কল দিয়ে খাদ্য সহায়তা চান সদর উপজেলার পশ্চিম দেওভোগ এলাকার মৃত সুরুজ্জামান খানের ছেলে  ফরিদ আহম্মেদ খান। দুই দিন পর সরেজমিনে বাড়ির সামনে আসেন সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আরিফা জহুরা। এ সময়, ইউএনও জানতে পারেন ফরিদ আহম্মেদ খান চার তলা বাড়ির মালিক এবং হোসিয়ারী কারখানা আছে। এজন্য, তাকে সহায়তা না দিয়ে উল্টো অসহায় ১০০ জনকে খাদ্য সহায়তা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। অন্যথায় তিন মাসের কারাদণ্ড দেওয়ার কথা বলা হয়েছিল।