ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
সর্বশেষ:

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:০৯

‘আফগানিস্তানে মেয়েরা ক্রিকেট খেলতে পারবে' : বোর্ড চেয়ারম্যান

20468_1311921.jpg
নারীদের ক্রিকেট খেলার বিষয়ে তালেবানের সম্পূর্ণ বিপরীত অবস্থান নিতে চলেছে আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। বোর্ড চেয়ারম্যান বলেছেন, আফগানিস্তানের সব নারী ক্রিকেটার দেশে নিরাপদ আছেন এবং তারা ক্রিকেট খেলতে পারবেন।

গত বুধবার তালেবানের সংস্কৃতি বিষয়ক কমিশনের উপ-প্রধান আহমাদুল্লাহ ওয়াসিক অস্ট্রেলিয়ার এসবিএস রেডিও পাশতো-কে বলেছিলেন, মেয়েদের খেলাধুলা করার আবশ্যকতা নেই। তালেবানের আমলে আফগানিস্তানের নারীরা আবার খেলাধুলার অধিকার হারাবেন- এমন ইঙ্গিত ছিল তার কথায়৷ ফলে ক্রীড়াবিশ্বে, বিশেষ করে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটাঙ্গনে এর প্রতিক্রিয়া দেখা দেয় দ্রুত।

আগামী নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নিজেদের ইতিহাসে প্রথম টেস্ট ম্যাচ খেলতে যাচ্ছে আফগানিস্তানের পুরুষ ক্রিকেট দল। কিন্তু তালেবানের সাংস্কৃতিক কমিশনের উপ-প্রধানের বক্তব্য শুনে অস্ট্রেলিয়া জানিয়ে দেয় আফগান নারীদের খেলাধুলার অধিকার কেড়ে নেয়া হলে হোবার্টে অনুষ্ঠেয় আফগানিস্তান-অস্ট্রেলিয়া টেস্ট ম্যাচ বাতিল করা হবে। অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক টিম পেইনও তার অসন্তোষ এবং ক্ষোভের কথা জানান কঠোরভাবে৷ পেইন মনে করেন, নারীদের অধিকার কেড়ে নিয়ে আফগানিস্তান যদি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দল পাঠায়, তাহলে অন্য দেশগুলোর উচিত হয় তার প্রতিবাদে আসর থেকে নিজেদের দল প্রত্যাহার করে নেয়া অথবা আফগানিস্তান দলকে বয়কট করা।

নারী ক্রীড়াবিদদের বিষয়ে তালেবানের সম্ভাব্য সিদ্ধান্ত আইসিসিতে আফগানিস্তানের পূর্ণ সদস্য পদকেও ফেলেছে হুমকিতে।

ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী টেস্ট খেলুড়ে প্রতিটি দেশে নারীদের সক্রিয় দলও থাকতে হবে৷ তাই নারীর অংশগ্রহণের সুযোগ না থাকলে আফগানিস্তানের পূর্ণ সদস্যপদও থাকবে কিনা এ বিষয়ে নভেম্বরের বোর্ড মিটিংয়েই সিদ্ধান্ত নিতে চায় আইসিসি।

এমন চতুর্মুখী চাপের মুখে আগেই অসহায়ত্ব প্রকাশ করেছিল আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। অস্ট্রেলিয়াকে হোবার্ট টেস্ট বাতিল না করার অনুরোধ জানিয়ে এক বিবৃতিতে বোর্ড বলেছিল, ‘আফগানিস্তানের সাংস্কৃতিক ও ধর্মীয় পরিবেশ পরিবর্তনে আমরা অক্ষম', তাই ‘আমাদের একা করে দেবেন না।'

কিন্তু আফগান ক্রিকেট বোর্ডের এই অনুরোধ হোবার্ট টেস্ট বাতিল বাতিল হওয়া ঠেকাতে পারলেও আফগানিস্তানের আইসিসির সদস্যপদ খারিজ হওয়ার আশঙ্কা দূর করতে পারতো না।

তবে ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান আজিজুল্লাহ ফাজলি নারী ক্রিকেটারদের সম্পর্কে যা বলেছেন তা সত্যি হলে আফগানিস্তানের ক্রিকেট আকাশে দেখা দেয়া কালো মেঘ কেটে যেতেই পারে। শুক্রবার অস্ট্রেলিয়ার এসবিএস রেডিও পাশতো-কেই তিনি বলেন, আফগানিস্তানে মেয়েরা ক্রিকেট খেলতে পারবে৷ কীভাবে সেটা সম্ভব জানতে চাইলে তিনি বলেন, বোর্ডের পরিচালনা পর্ষদ শিগগিরই তার একটা রূপরেখা দাঁড় করাবে এবং ‘খুব তাড়াতাড়ি আমরা এ বিষয়ে আপনাদের ভালো একটা খবর দেবো। নারীদের কীভাবে ক্রিকেট খেলার সুযোগ দেয়া হবে তা-ও জানিয়ে দেয়া হবে খুব তাড়াতাড়ি।'

বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ী, আফগানিস্তানের নারী ক্রিকেটাররা এখন পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। তালেবান তাদের খুঁজে বের করতে কাবুলের বাড়ি বাড়ি হানা দিচ্ছে। তবে আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান এসবিএস রেডিও পাশতো-কে বলেন, ‘ নারী ক্রিকেট কোচ ডায়না বারাকজাই এবং তার খেলোয়াড়রা নিরাপদ আছেন। নিজেদের দেশেই আছেন তারা। অনেক দেশ তাদের আফগানিস্তান ছাড়তে বলেছে, কিন্তু তারা আফগানিস্তান ছেড়ে যাননি।'